1. thuin.bd25@gmail.com : Golam Sarwar Tuhin : Golam Sarwar Tuhin
  2. neyamulahasan@gmail.com : Neyamul Ahasan Heron : Neyamul Ahasan Heron
  3. tarikpress200@gmail.com : Tarik Hasan : Tarik Hasan
  4. tonmoyahmednayon@gmail.com : Md.Tonmoy Ahmed Nayon : Md.Tonmoy Ahmed Nayon
শনিবার, ০৪ এপ্রিল ২০২০, ০৯:১৩ পূর্বাহ্ন




বাংলাদেশের ভয়াবহতা নিয়ে যুক্তরাষ্ট্র প্রবাসী খুবি শিক্ষকের খোলা চিঠি

আরিফুল রুবেল, পুঠিয়া (রাজশাহী) থেকেঃ
  • প্রকাশিত সময় : সোমবার, ২৩ মার্চ, ২০২০, ০৫:৪২ অপরাহ্ন
  • ১৯ বার

বৈশ্বিক মহামারী করোনাভাইরাস পরিস্থিতিতে স্বদেশের প্রতি প্রবাসীদের মমত্ববোধ ফুটে উঠেছে খুলনা বিশ্ববিদ্যালয়ের বায়োটেকনোলোজি অ্যান্ড জেনেটিক ইঞ্জিনিয়ারিং ডিসিপ্লিনের অধ্যাপক ড. এস এম আব্দুল আওয়ালের বক্তব্যে। বসবাস করছেন যুক্তরাষ্ট্রের ক্যালিফোনিয়া রাজ্যের আলবানি শহরের অ্যাডামস স্ট্রিটে। বর্তমান ভয়াবহ পরিস্থিতিতে জীবন-মৃত্যুর সন্ধিক্ষণে দাঁড়িয়ে নিজের ফেসবুকে খোলা চিঠিতে প্রিয় মাতৃভূমিকে সতর্ক হওয়ার পরামর্শ দিয়েছেন তিনি।

তার ফেসবুক ওয়াল থেকে খোলা চিঠিটি পাঠকের উদ্দেশে তুলে ধরা হলো- প্রিয় বাংলাদেশ, আমরা যারা জীবন জীবিকা, শিক্ষা বা গবেষণার জন্য তোমাকে ছেড়ে বিদেশ বিভূঁইয়ে পড়ে আছি তারা এই মুহুত্তে একটা ক্রান্তিকাল অতিক্রম করছি। যতই আমরা ইউরোপ/আমেরিকা থাকিনা কেন, খুবই অস্বস্তি আর অনিশ্চিত সময় কাটাচ্ছি। সারা বিশ্বের অর্থনীতিতে ধস নেমেছে, অবলীলায় মানুষ মারা যাচ্ছে! খুব ছোট একটা কারন, ভাইরাস। এটা কি জানও তো? তুমি খালি চোখে দেখতে পারবা না, এটাকে দেখতে হলে তোমাকে সুক্ষ মাইক্রোস্কোপ ব্যাবহার করতে হবে। দেখতে পারবা না বলে ভয় পাচ্ছো না তো? আমরা পাচ্ছি, আমেরিকার মত দেশে থেকে পাচ্ছি। কারণ হু হু করে আক্রান্তের সংখ্যা আর মৃতের সংখ্যা বেড়ে যাচ্ছে চারেদিকে। ইটালি, নরওয়ে, থেকে শুরু করে আমেরিকা সব আস্তে আস্তে বন্ধ হয়ে যাচ্ছে। এইতো সেদিন ডেভিস এ

একজন করোনা আক্রান্ত রোগীর চিকিৎসা চলছিল। মনে মনে ভাবলাম, ডেভিস আমার শহর থেকে ৫১ মাইল দূরে। চিন্তা কি! কিন্তু প্রায় এক সপ্তাহের বাবধানে আমাদের শহরে একজন পাওয়া গেল। তখনও মনের মধ্যে ভয় উকি দেয় নি। কিন্তু গত সপ্তাহব্যাপী বে এরিয়াতে রোগীর সংখ্যা বেড়ে যাচ্ছে হু হু করে। আর আজ সকালে ইমেইল পেলাম, গবেষণা বন্ধ,কারন বিল্ডিং বন্ধ করে দেয়া হয়েছে। বন্ধ করে দেয়া হয়ছে সমস্ত সপিংমল, শুধুমাত্র ফার্মেসি আর গ্লসারি সপ ছাড়া।
ইউরোপ আমেরিকার এতকম জনসংখ্যার ঘনত্ব থাকা সত্যেও এটা ছড়িয়ে পরছে। এবার তোমার কথা চিন্তা কর। তুমি কত ছোট একটা দেশ হয়ে কত জনসংখ্যা নিয়ে বয়ে বেড়াচ্ছ! তুমি আক্রান্তও হয়েছ! কিন্তু এখনো সংখ্যা অনেক কম। এখনো সময় আছে, সাবধান হও! নইলে কি ভয়াবহতা অপেক্ষা করছে সামনে বুঝতে পারবা না!

বি দ্রঃ অনুগ্রহ করে শান্ত থাকুন, যতদূর সম্ভব বাড়িতে থাকুন (শিক্ষা প্রতিষ্ঠান বা অফিস বন্ধ হয়ছে বলে ভ্রমনে বেরুবেনা), বার বার হাত পরিষ্কার করুন, অসুস্থ মনে হলে বাইরে বেরুবেন না, যারা অফিস করছেন সাবধানতা অবলম্বন করুন। আমাদের জনসংখ্যার একটা বড় অংশ দরিদ্র এবং তাঁদের এব্যাপারে সম্যক জ্ঞান খুবই কম, এজন্য আমাদের দায়িত্ব বেশি উনাদের প্রতি। আসুন সবাই একটু
চিন্তাশীল হই, একটু যত্নবান হই নিজের প্রতি, অন্যর প্রতি, আপনার একটু ত্যাগই আমাদের মাতৃভূমিকে রক্ষা করতে পারে। মহান আল্লাহ্তায়ালা আমাদের সবাইকে হেফাজতে রাখুন এবং হেদায়েত দান করুন।




নিউজটি শেয়ার করুন...

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ জাতীয় আরো খবর..