টাঙ্গাইলের ভূঞাপুরে পানিতে ডুবে শিশুর মৃত্যু ও লবণ দিয়ে চিকিৎসা




টাঙ্গাইলের ভূঞাপুরে পুকুরের পানিতে ডুবে এক শিশুর মৃত্যু হয়। সে উপজেলার গোবিন্দাসী ইউনিয়নের মানিক মিয়ার ছেলে আব্দুল্লাহ নামের ১৮ মাসের শিশু।

মঙ্গলবার (২জুন) সকালে উপজেলার শালদাইর গ্রামে এই ঘটনা ঘটে। দুপুরে বাড়ির সবাই যখন ধানের কাজে ব্যস্ত তখন শিশুটি খেলতে খেলতে সবার অগোচরে এক সময় বাড়ির পাশের পুকুরে পড়ে ডুবে যায়। এদিকে শিশুটিকে তার মা দেখতে না পেয়ে আশপাশে খোঁজাখুঁজি করতে থাকে। পরে পুকুরে শিশুটির মরদেহ ভাসতে দেখে চিৎকার করে তার মা। চিৎকার শুনে আশে পাশের সবাই ছুটে আসে। সবার সহযোগিতায় ভাসতে থাকা শিশুটিকে উদ্ধার করে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে যায়। পরে কর্তব্যরত চিকিৎসক ডা: আল হাদি তাকে মৃত ঘোষণা করেন।

এদিকে শিশুর মরদেহ বাড়িতে নেয়ার পথে এক নারী জানায়, পানিতে ডুবে মারা যাওয়া শিশুর পুরো শরীর লবণ দিয়ে ঢেকে দিলে সে সুস্থ হয়ে উঠবে। এমন গুজবে তার পরিবার শিশুটির লাশ প্রায় দুই ঘন্টা লবণ দিয়ে ঢেকে রাখে। কিন্তু শিশুর প্রাণ না ফেরায় বরং লাশ আরো শক্ত হয়ে যাওয়ায় বিকেলেই দাফন করা হয়।

নিহতের চাচাতো ভাই ইসলাম হোসেন জানান, শিশু সন্তানকে রেখে তার মা ধান শুকানোর কাজ করছিল। পরে শিশুটি খেলতে বাড়ির পাশের একটি পুকুরে পড়ে যায়। অনেক খোঁজাখুঁজির পর ওর লাশ আমরা পুকুরের পানিতে ভাসতে দেখে আমরা উদ্ধার করে হাসপাতালে নিয়ে যাই। কিন্তু তার আগেই তার মৃত্যু হয়।

আপনার মতামত লিখুন :

প্রভাতী নিউজ সব ধরনের আলোচনা-সমালোচনা সাদরে গ্রহণ ও উৎসাহিত করে। অশালীন ও কুরুচিপূর্ণ মন্তব্য পরিহার করুন। এটা আইনত দণ্ডনীয় অপরাধ।