রিশিকুল ইউপি চেয়ারম্যান টুলুর উদাসীনতায় সামাজিক দূরত্ব না মেনেই ভিজিএফের চাল বিতরণ

নিজস্ব প্রতিবেদক:নিজস্ব প্রতিবেদক:
  প্রকাশিত হয়েছেঃ  ০৫:৪৯ পূর্বাহ্ণ, ২৮ জুলাই ২০২০




সোমবার (২৭ জুলাই) সকাল থেকে পবিত্র ঈদ-উল- আযহা সামনে রেখে রাজশাহী গোদাগাড়ী উপজেলার ৪ নং রিশিকুল ইউনিয়ন পরিষদে ভিজিএফ এর চাল বিতরণ করা হয়।

এ সময় ইউনিয়নের প্রথমদিনে প্রায় ১ হাজার নিম্নআয়ের মানুষের মাঝে ১০ কেজি করে ভিজিএফ এর সরকারী চাল প্রদান করেন ইউনিয়নের মেম্বার এবং দায়িত্বশীল ব্যাক্তিরা।

সকলেই সামাজিক দূরত্ব না মেনে এবং মাস্ক ব্যাবহার না করেই যে যার মতো করে চাল সংগ্রহ করতে দেখা গেছে । ইদানীং গোদাগাড়ী উপজেলায় করোনাভাইরাস শনাক্ত সংখ্যা বেড়েই চলছে।এরপরও কারো মাঝে বিন্দু পরিমাণ সচেতনতা দেখা মিলেনি। বিশেষ করে নিম্ন আয়ের মানুষগুলো ছুটে এসেছে ঈদ উপলক্ষ্যে সরকারের দেওয়া চালের আশায় । সরকার সকলকেই সামাজিক দূরত্ব মেনে চলার এবং মাস্ক ব্যাবহারের জন্য নির্দেশনা দিলেও বেশীরভাগ মানুষ ই মানেননি এই নির্দেশনা ।

এমন অবস্থায় রিশিকুল ইউপি চেয়ারম্যান শহিদুল ইসলাম টুলু সামাজিক দূরত্ব এবং মাস্ক ব্যাবহার নিশ্চিত না করেই চাল বিতরণ করাকে করোনা পরিস্থিতি মোকাবিলায় হুমকি স্বরূপ হতে পারে বলে মনে করছেন স্থানীয়রা।

এদিকে অত্র ইউনিয়নের ১ নং ওয়ার্ডের বিলাসী গ্রামের মৃত নাজিমুদ্দিনের স্ত্রী রওশন আরা কান্না জড়িত কন্ঠে বলেন,গত ৩০ বছর হলো আমার স্বামী মারা গিয়েছে। আজ অবধি কোন মেম্বার চেয়ারম্যান আমাকে বিধবাভাতা কিংবা বয়স্কভাতা কার্ড করে দেয়নি।বহু কষ্টে মানুষের বাড়িতে কাজ করে আমার দিন অতিবাহিত হচ্ছে। দু’দিন আগে ১ নং ওয়ার্ডের মেম্বার মজিবর আমার কাছে আমার জাতীয় পরিচয়পত্র নিয়েছে ঈদের চাল দিবে বলে। সেই মোতাবেক আজ বিলাসী থেকে মান্ডইল প্রায় ৬ কিলোমিটার রাস্তা হেটে এসেছি কষ্ট করে চাল নিতে।এসে মজিবর মেম্বার জানান,তুমি চাল পাবেনা বাড়ি চলে যাও। এখন বাড়ি ফেরত যাচ্ছি।মানুষের কাছে চেয়েই ঈদ পার করতে হবে। নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক জনৈক মহিলা জানান, আমাদের দু:খ দূর্দশা দেখার জন্য আমরা মহিলা মেম্বার হিসেবে ফিরোজাকে ভোট দিয়ে বিজয়ী করেছি।কিন্তু এযাবত ফিরোজা কিংবা চেয়ারম্যান টুলু আমাদের কোন কাজে আসেনি।

এবিষয়ে জানতে রিশিকুল ইউনিয়ন পরিষদে আইন শৃংখলা বজায় রাখতে দায়িত্বরত কাকনহাট পুলিশ তদন্ত কেন্দ্রের ইন্সপেক্টর শিশির পাল বলেন, যতক্ষন চাউল বিতরন হবে আমরা এখানে ডিউটি পালন করে যাবো। এখানে অনিয়মের কোন প্রশ্নই উঠেনা।আমি ইউনিয়ন পরিষদের দায়িত্বশীলদের বলে দিয়েছি আপনারা সঠিকভাবে চাল বিতরন করবেন কোন প্রকার অনিয়ম বরদাস্ত করা হবেনা।আর আমার সদস্যরা যথাবিহিত মাস্ক পরিহিত অবস্থায় দায়িত্ব পালন করে যাচ্ছেন।

অত্র ইউপির চেয়ারম্যান শহিদুল ইসলাম টুলু এবিষয়ে কোন মন্তব্য করতে রাজি হননি।

আপনার মতামত লিখুন :

প্রভাতী নিউজ সব ধরনের আলোচনা-সমালোচনা সাদরে গ্রহণ ও উৎসাহিত করে। অশালীন ও কুরুচিপূর্ণ মন্তব্য পরিহার করুন। এটা আইনত দণ্ডনীয় অপরাধ।