ইসরায়েলের সঙ্গে সম্পর্ক স্থাপনের ঘোষণা বাহরাইনের

আন্তর্জাতিক ডেস্ক:আন্তর্জাতিক ডেস্ক:
  প্রকাশিত হয়েছেঃ  ০৬:৩৮ পূর্বাহ্ণ, ১২ সেপ্টেম্বর ২০২০




সংযুক্ত আরব আমিরাতের পর ইসরায়েলের সঙ্গে সম্পর্ক স্বাভাবিক করতে ‘ঐতিহাসিক শান্তি’ চুক্তিতে পৌঁছেছে উপসাগরীয় দেশ বাহরাইন।

শুক্রবার (১১ সেপ্টেম্বর) যুক্তরাষ্ট্র, ইসরায়েল ও বাহরাইন এক যৌথ বিবৃতিতে এ ঘোষণা দেয়।

মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের মধ্যস্থতায় ইসরায়েলের প্রধানমন্ত্রী বেঞ্জামিন নেতানিয়াহু ও বাহরাইনের রাজা হামাদ বিন ইসা আল খালিফা এ চুক্তিতে সম্মত হন।

ডোনাল্ড ট্রাম্প এক টুইট বার্তায় বলেছেন, এতো দ্রুত এ ঘটনা ঘটবে; যা অকল্পনীয়। তিনি বলেন, যুগান্তকারী এক চুক্তিতে পৌঁছেছে ইসরায়েল ও বাহরাইন।

তিন দেশের যৌথ বিবৃতিতে বলা হয়েছে, শুক্রবার ইসরায়েলের প্রধানমন্ত্রী ও বাহরাইনের রাজার সঙ্গে মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের আলোচনার পরই এ ‘ঐতিহাসিক শান্তি’ চুক্তিতে একমত হয় দুই দেশ।

বিবৃতিতে আরও বলা হয়েছে, মধ্যপ্রাচ্যে শান্তি প্রতিষ্ঠায় এটি একটি ঐতিহাসিক ঘটনা।

কয়েক দশক ধরে, বেশিরভাগ আরব দেশ ফিলিস্তিনের বিরোধ নিষ্পত্তি হওয়ার পরে কেবল সম্পর্ক স্থাপন করবে বলে জোর দিয়ে ইসরায়েলকে বয়কট করেছে।

তবে গত মাসে সংযুক্ত আরব আমিরাত ইসরায়েলের সঙ্গে সম্পর্ক স্বাভাবিক করার বিষয়ে একমত হয়েছে। অনেক জল্পনা ছিল যে বাহরাইনও একই পথ অনুসরণ করতে পারে।

এর আগে গত ১৩ আগস্ট মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের মধ্যস্থতায় মধ্যপ্রাচ্যের দুই দেশ ইসরায়েল এবং সংযুক্ত আরব আমিরাত ঐতিহাসিক শান্তি চুক্তিতে পৌঁছে। চুক্তিটির ফলে মধ্যপ্রাচ্যের দুই দেশের কূটনৈতিক সম্পর্ক পুরোপুরি স্বাভাবিকের পথে রয়েছে।

এদিকে ডোনাল্ড ট্রাম্প জানিয়েছেন, আগামী ১৫ সেপ্টেম্বর হোয়াইট হাউজে চুক্তি স্বাক্ষর অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়েছে। যেখানে সংযুক্ত আরব আমিরাত ও বাহরাইন নিজ দেশের পক্ষে পৃথকভাবে ইসরায়েলের সঙ্গে চুক্তি স্বাক্ষর করবে।

আপনার মতামত লিখুন :

প্রভাতী নিউজ সব ধরনের আলোচনা-সমালোচনা সাদরে গ্রহণ ও উৎসাহিত করে। অশালীন ও কুরুচিপূর্ণ মন্তব্য পরিহার করুন। এটা আইনত দণ্ডনীয় অপরাধ।