বগুড়ার শেরপুর রণবীরবালা-ফুলবাড়ি রোড এখন মরণ ফাঁদ




শেরপুর উপজেলার গাড়িদহ ইউনিয়নের ধুনট রোড রণবীরবালা-ফুলবাড়ি বাজার রাস্তাটি এখন মরণ ফাঁদ হয়ে দাঁড়িয়েছে। জীবনের ঝুঁকি নিয়ে প্রয়োজনের তাগিদে ওই রাস্তায় চলাচল করছেন প্রায় ২০ গ্রামের হাজার হাজার মানুষ।

সরেজমিনে ও স্থানীয়রা জানায়, জনবহুল এই গুরুত্বপূর্ণ সড়কে যে কোনসময় ঘটতে পারে দূর্ঘটনা। ছোট ফুলবাড়ি গ্রামের কৃষি জমিতে ফসল উৎপাদনে স্বনির্ভরতা লক্ষ্য অর্জনের প্লান্ট গুলো প্রায় একযুগ আগে সরেজমিনে মাঠ পর্যায়ে দেখতে যান মার্কিন রাষ্ট্রদুত হুয়া-দু। ওই সময় শেরপুর উপজেলার গাড়িদহ ইউনিয়নের ছোটফুলবাড়ি গ্রামের মাটির রাস্তায় আসেন তারা। এরপর গ্রামবাসীর দাবীর প্রেক্ষিতে তিনি বগুড়া জেলা প্রশাসনকে ওই রাস্তাটি পাঁকা করনের জন্য অনুরোধ করেন। তৎকালীন বগুড়া প্রশাসক এর নির্দেশে মাত্র আধা কিলোমিটার রাস্তা পাঁকা করন করা হয়। এরপর আবারও সরকারের উচচ পর্যায়ের নির্দেশে আরোও দেড় কিলোমিটার সহ মোট দুই কিলোমিটার রাস্তার কাজ করা হয়।

বর্তমানে রণবীরবালা গ্রামে রাস্তার শুরুতে একটি বৃহৎ গর্তের সৃষ্টি হওয়ায় চলাচলের অযোগ্য হয়ে পড়েছে। যে কোন সময় দুর্ঘটনার আশংকা দেখা দিয়েছে। রাস্তাটি ভেঙে প্রায় ৬/৭ফুট খাদের সৃষ্টি হওয়ায় গত এক সপ্তাহ যাবত কৃষি নির্ভরশীল ঐ এলাকায় ছোট বাস-ট্রাক চলাচল বন্ধ আছে। এরপর স্থানীয় লোকজন কয়েকটি বালির বস্তা দিয়ে পথচারী ও রিক্সা যাতায়াতের ব্যবস্থা করলেও অসুস্থ রোগী সহ সকলকে জীবনের ঝুঁকি নিয়ে চলাচল করতে হচ্ছে। এছাড়াও রাস্তাটির মাঝে ছোট ফুলবাড়ি ইয়াকুব মোড়, মসজিদের উত্তর মোড়, করতোয়া নদীর পূর্বধারে শশ্মান মোড়, ফুলবাড়ি দহপাড়া মোড় সহ প্রায় পনেরটি স্থানে রাস্তায় ঝুঁকিপূর্ণ অবস্থার সৃষ্টি হয়েছে। ফলে সীমাহীন দূর্ভোগ পোহাতে হচ্ছে এলাকাবাসীর।

এলাকাবাসীর দাবীর প্রেক্ষিতে গাড়িদহ ইউপি চেয়ারম্যান মো.দবির উদ্দিন রাস্তাটি পরির্দশন করে জানান, গত ১০ সেপ্টেন্বর শেরপুর উপজেলা পরিষদ সমন্বয় কমিটির সভায় ওই রাস্তার বিষয়টি উপস্থাপন করা হয়েছে। রাস্তাটি সংস্কার করতে মোটা অংকের টাকার প্রয়োজন। তাই প্রাথমিক ভাবে রাবিস দিয়ে অস্থায়ী মেরামত করা হবে।

আপনার মতামত লিখুন :

প্রভাতী নিউজ সব ধরনের আলোচনা-সমালোচনা সাদরে গ্রহণ ও উৎসাহিত করে। অশালীন ও কুরুচিপূর্ণ মন্তব্য পরিহার করুন। এটা আইনত দণ্ডনীয় অপরাধ।