আশা জাগানিয়া জনসনের ভ্যাকসিন ট্রায়াল স্থগিত

আন্তর্জাতিক ডেস্ক:আন্তর্জাতিক ডেস্ক:
  প্রকাশিত হয়েছেঃ  ০২:৪৩ অপরাহ্ণ, ১৩ অক্টোবর ২০২০
আশা জাগানিয়া জনসনের ভ্যাকসিন ট্রায়াল স্থগিত




জনসন অ্যান্ড জনসনের ভ্যাকসিন অনেক আশা জাগিয়েছিল। করোনার বিরুদ্ধে এক ডোজেই কাজ হবে এমন প্রতিশ্রুতি ছিল। সেই ভ্যাকসিনও এবার মুখ থুবড়ে পড়ল। সোমবার জনসন অ্যান্ড জনসন কর্তৃপক্ষ ভ্যাকসিন ট্রায়াল বন্ধ করতে বাধ্য হল। যে কোনও ভ্যাকসিন তৃতীয় দফার ক্লিনিকাল ট্রায়াল সফল ভাবে পার করতে পারলে তবেই তাকে ব্যবহারের উপযোগী বলে ধরা হয়।

ভ্যাকসিন ট্রায়ালে অংশগ্রহণকারীরা অসুস্থ হয়ে পড়ায় এই সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে বলে কর্তৃপক্ষ জানিয়েছে।

জনসন অ্যান্ড জনসনের বিবৃতিতে জানানো হয়েছে, আমরা অস্থায়ীভাবে ভ্যাকসিনের ট্রায়াল বন্ধ রাখতে বাধ্য হলাম। ফেজ ৩ এনসেম্বেল ট্রায়ালও বন্ধ রাখতে হচ্ছে। কারণ অংশগ্রহণকারীরা অনেকেই ব্যাখ্যাতীতভাবে অসুস্থ হয়ে পড়ছে।

মাত্র দু’সপ্তাহ আগেই ৬০ হাজার মানুষের উপর ভ্যাকসিনের ক্লিনিক্যাল ট্রায়াল শুরু করে জনসন অ্যান্ড জনসন। অন্যান্য সংস্থার ভ্যাকসিনের ক্ষেত্রে দুটো ডোজের প্রয়োজনীয়তা থাকলেও নতুন আশার আলো দেখায় এই ভ্যাকসিনটি। কারণ দেখা যায়, এক ডোজেই সুফল মিলছে। দ্রুত গতিতে শুরু হয় তৃতীয় দফার কাজ।

জনসন অ্যান্ড জনসনের সম্ভব্য প্রতিষেধটির নাম এডি২৬কোভ২এস। গত জুলাই মাসে প্রথম হনুমানের দেহে এই ভ্যাকসিনটি প্রয়োগ করে সাফল্য পান বিজ্ঞানীরা। দেখা যায়, কোভিডের বিরুদ্ধে প্রতিরোধক্ষমতা গড়ে তুলতে পারছে ভ্যাকসিনটি। এরপরে ১ হাজার প্রাপ্তবয়স্ক মার্কিন নাগরিকের উপর এই ভ্যাকসিন প্রযুক্ত হয়।

জনসন-গবেষকরা বিবৃতি দিয়ে জানান, যারা ভ্যাকসিন নিয়েছেন তাদের মধ্যে ৯৮ শতাংশের শরীরেই অ্যান্টিবডি তৈরি হয়েছে। এই অ্যান্টিবডি সক্রিয় থাকছে ২৯ দিন। অর্থাৎ ২৯ দিন প্যাথোজেন থেকে কোষরক্ষার ভরসা জোগায় এই ভ্যাকসিন।

আপনার মতামত লিখুন :

প্রভাতী নিউজ সব ধরনের আলোচনা-সমালোচনা সাদরে গ্রহণ ও উৎসাহিত করে। অশালীন ও কুরুচিপূর্ণ মন্তব্য পরিহার করুন। এটা আইনত দণ্ডনীয় অপরাধ।