প্রাথমিকে অটো প্রমোশন, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ভর্তি পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হবে বিভাগীয় শহরে

প্রভাতী নিউজ অনলাইন রিপোর্টঃপ্রভাতী নিউজ অনলাইন রিপোর্টঃ
  প্রকাশিত হয়েছেঃ  ০৬:৪৮ অপরাহ্ণ, ২৩ নভেম্বর ২০২০




অবশেষে পরীক্ষা ছাড়াই প্রাথমিক বিদ্যালয়ের সব শিক্ষার্থীকে পরের ক্লাসে উন্নীত করার সিদ্ধান্ত জানিয়ে দিয়েছে সরকারের প্রাথমিক শিক্ষা অধিদপ্তর। শিক্ষার্থীর যার যে রোল নম্বর আছে, সেই রোল নিয়েই পরের শ্রেণিতে উঠতে হবে। এ জন্য শিক্ষার্থীদের মূল্যায়ন করবেন নিজ নিজ বিদ্যালয়ের শিক্ষকরা।

আজ সোমবার এমন নির্দেশনা দিয়ে প্রাথমিক শিক্ষার সব বিভাগীয় উপপরিচালক, জেলা প্রাথমিক শিক্ষা অফিসার, উপজেলা শিক্ষা অফিসার, উপজেলা সহকারী শিক্ষা অফিসার এবং প্রধান শিক্ষকদের কাছে চিঠি পাঠিয়েছে প্রাথমিক শিক্ষা অধিদপ্তর।

অধিদপ্তরের মহাপরিচালক আলমগীর মুহম্মদ মনসুরুল আলম সংবাদমাধ্যমকে জানান, ১৬ মার্চ পর্যন্ত ক্লাস হয়েছে। টেস্ট হয়েছে। আর শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান বন্ধের পর সংসদ টিভি, বাংলাদেশ বেতার, অনলাইনে শিক্ষার্থীদের পড়ানো হয়েছে। এসবের রেকর্ড আছে। মহামারির কারণে আনুষ্ঠানিক কোনো পরীক্ষা হবে না। ফলে মূল্যায়নটা শিক্ষকদের ওই রেকর্ড থেকে হবে।

ঢাবি’র ভর্তি পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হবে বিভাগীয় শহরে

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ চলমান করোনা ভাইরাস পরিস্থিতির মধ্যে শিক্ষার্থী এবং অভিভাবকদের সমস্যার কথা বিবেচনায় রেখে ২০২০-২১ শিক্ষাবর্ষের ভর্তি পরীক্ষায় ভর্তিচ্ছুদের নিজ নিজ বিভাগীয় শহরে অনুষ্ঠানের সিদ্ধান্ত নিয়েছে। এছাড়া ভর্তি পরিক্ষায় নম্বর বণ্টনেও পরিবর্তন আনা হয়েছে।

আজ সোমবার বিশ্ববিদ্যালয়ের সাধারণ ভর্তি কমিটির সভায় এ সিদ্ধান্ত নেয়া হয়। ভর্তি পরীক্ষার আবেদন গ্রহণ এবং পরীক্ষার সময়সূচি যথাসময়ে জানানো হবে।

সভার সিদ্ধান্ত আনুযায়ী দেশের ৮টি বিভাগীয় শহর যথা ঢাকা, চট্টগ্রাম, রাজশাহী, খুলনা বরিশাল, সিলেট, রংপুর, ময়মনসিংহে ভর্তি পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হবে।

এছাড়া ভর্তি পরীক্ষায় ক, খ, গ ও ঘ এই চারটি ইউনিটে ৪০ নম্বরের এমসিকিউ (বহু নির্বাচনী), ৪০ নম্বরের লিখিতসহ মোট ৮০ নম্বরের পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হবে। এর বাইরে এসএসসি এবং এইচএসসি পরীক্ষার ফলাফলের ওপর ১০ করে মোট ২০ নম্বরের মূল্যায়ন নম্বর প্রদান করা হবে। সর্বমোট ১০০ নম্বরের পরীক্ষা নেয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছে ঢাবি ভর্তি কমিটি। সময় ও বিষয়ভিত্তিক প্রশ্ন ঠিক করবেন সংশ্লিষ্ট অনুষদের ডিনরা।

এছাড়াও ২০২১-২২ শিক্ষাবর্ষে ভর্তি পরীক্ষায় বিশ্ববিদ্যালয়ের “চ” ইউনিট আগের মতোই বহালের সিদ্ধান্ত নেয়া হয়েছে। এর বাইরে “ঘ” ইউনিটের বিষয়টি পর্যালোচনা করে পরবর্তীতে সিদ্ধান্ত নেয়া হবে। এছাড়া, সভায় ভর্তির জন্য আসন সংখ্যা কমানোর বিষয়ে কথা উঠলেও তা নিয়ে কোনো আলোচনা হয়নি বলে জানিয়েছে সংশ্লিষ্ট সূত্র।

বিশ্ববিদ্যালয়ের জনসংযোগ দফতর থেকে পাঠানো সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, উপাচার্য অধ্যাপক ড. মো. আখতারুজ্জামানের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত সভায় উপস্থিত ছিলেন উপ-উপাচার্য (শিক্ষা) অধ্যাপক ড. এ এস এম মাকসুদ কামাল, কোষাধ্যক্ষ অধ্যাপক মমতাজ উদ্দিন আহমেদ, বিভিন্ন অনুষদের ডিন, বিভিন্ন বিভাগের চেয়ারম্যান, বিভিন্ন ইনস্টিটিউটের পরিচালক, বিভিন্ন হলের প্রাধ্যক্ষ এবং ভর্তি কার্যক্রম সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তাগণ।#

আপনার মতামত লিখুন :

প্রভাতী নিউজ সব ধরনের আলোচনা-সমালোচনা সাদরে গ্রহণ ও উৎসাহিত করে। অশালীন ও কুরুচিপূর্ণ মন্তব্য পরিহার করুন। এটা আইনত দণ্ডনীয় অপরাধ।